Published On: Thu, May 3rd, 2018

হোটেলে দেওয়া সাবান জীবনেও হাত দিবেননা! আর দিলে যা হবে জানলে আতকে উঠবেন!

যে কারনে হোটেলে দেওয়া সাবান জীবনেও হাত দিবেননা – কোথাও ঘুরতে গেলে হোটেল থেকে কি সুগন্ধী সাবান কিংবা বাথরুমের অন্যান্য জিনিস নিয়ে আসার অভ্যেস আছে আপনার? তাহলে আজ থেকেই সেই অভ্যেসটা বদলে ফেলার চেষ্টা করুন৷

কারণ আপনি কি জানেন আপনার ব্যবহৃত সাবানই পৃথিবীর একাধিক মানুষের প্রাণ বাঁচাতে সাহায্য করছে! অবাক লাগছে? কিন্তু একটি বিশেষ সমীক্ষায় উঠে এসেছে এমনই একটি তথ্য৷ ‘ক্লিন দ্য ওয়ার্ল্ড’ নামক একটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা এই বিষয়টি নিয়েই কাজ করে৷

সমীক্ষায় উঠে এসেছে যে, সারা বিশ্বে ২.৫বিলিয়ন মানুষ পরিষ্কার শৌচালয় ব্যবহার করতে পারেনা৷ প্রতি বছর প্রায় ৫লাখ ২৫হাজার শিশু মারা যায় এই কারণে৷ যাদের প্রত্যেকের বয়সই পাঁচ বছরের নীচে৷ ‘ক্লিন দ্য ওয়ার্ল্ড’ নামক এই স্বেচ্ছাসেবী সংস্থাটি ব্যবহৃত সে সমস্ত সাবান গুলিকে পুনর্ব্যবহার যোগ্য করে আবার নতুন করে তৈরি করে৷

আর তা ১১৫টি দেশে সেই নতুন সাবান ছড়িয়ে দেওয়া হয়৷ আর সাবানের সেই সংখ্যাটি প্রায় ৪০মিলিয়ন৷ তবে শুধু সাবান নয়৷ কন্ডিশনার, শ্যাম্পু সমস্ত কিছুই রয়েছে এই তালিকায়৷

দ্য সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন (সিডিসি)-র তরফে জানানো হয়েছে, ডায়রিয়ার ফলে প্রতি বছর যে একাধিক মানুষের মৃত্যু হয়৷ সেই সংখ্যাটি অতি সহজেই ৫০শতাংশ কমিয়ে ফেলা সম্ভব হবে বলে জানিয়েছে সিডিসি৷

এরফলে মৃত্যুহারও কমবে অনেকাংশে৷হিলটন, ডিজনির মতন বিশ্বখ্যাত হোটেলগুলি এই বিশাল কর্মসূচিতে যোগদান করেছে৷ আজ থেকে আপনিও তৈরি হয়ে যান এই উদ্যোগে সামিল হওয়ার জন্য৷ আপনার ছোট প্রয়াস যদি লক্ষ লক্ষ মানুষের প্রাণ বাঁচাতে পারে তাহলে মন্দ কি?
=====
স্ত্রীকে তালাকের পর পুনরায় বিয়ে করতে চাইলে করণীয়!!

বিয়ে একটি পারিবারিক বন্ধন। বিয়ের মাধ্যমে একজন নারী ও পুরুষ শারীরিক, মানসিক ও আত্মিকবন্ধনে আবদ্ধ হয়। বিয়ের মাধ্যমে দুই হাত এক করে সারাজীবন একসঙ্গে থাকার জন্য শপথ করে। কিন্তু এই সংসার জীবন সবসময় সুখের হয় না। সংসার জীবনেও চলে ভাঙাগড়ার খেলা। একজনের মন যখন অন্যজন থেকে এমনভাবে বিমুখ হয়ে যায় যে, তাদের শুভ মিলনের আর কোনো সম্ভাবনা থাকে না। ঠিক তখনই তালাকের কথা বলা হয়েছে ইসলামে।

মুসলিম পারিবারিক আইনে বলা হয়েছে- ‘কোনো পুরুষ তাহার স্ত্রীকে তালাক দিতে চাহিলে তাহাকে মুসলিম আইনে অনুমোদিত যে কোনো পদ্ধতিতে ঘোষণার পরই তিনি তাহার স্ত্রীকে তালাক দিয়েছেন, এ মর্মে চেয়ারম্যানকে লিখিতভাবে নোটিশ প্রদান করবেন এবং স্ত্রীকেও উহার নকল দিবেন’ অর্থাৎ তালাক প্রদান বা ঘোষণার ক্ষেত্রে ইসলামি শরিয়তের প্রবর্তিত পদ্ধতিই হচ্ছে মুসলিম পারিবারিক আইনের পদ্ধতি। তাই শরিয়ত প্রবর্তিত তালাকসংক্রান্ত বিধানাবলি ভালোভাবে জানা ও বোঝা খুবই জরুরি। বিশেষ করে নিকাহ রেজিস্ট্রারদের এ সম্পর্কে পরিষ্কার ধারণা থাকা অত্যন্ত জরুরি।

আজ আমরা জানব কীভাবে পুনরায় তালাক দেয়া স্ত্রীকে বিয়ে করা যাবে…

স্ত্রীকে তালাক দেয়ার পর স্বামী চেয়ারম্যানকে লিখিতভাবে নোটিশ প্রদান করবেন এবং স্ত্রীকেও তার নকল দেবেন। স্ত্রী হাতে চিঠি পৌঁছানোর পর একটি সালিশি বৈঠক হবে। যদি শেষ পর্যন্ত মীমাংসা না হয় তবে তিন মাস ১০ দিনের মধ্যে তালাক কার্যকর হবে। তালাক কার্যকরের পর যদি তালাক দেয়া স্ত্রীকে আবার গ্রহণ করতে চান, তবে আগের মতো নিয়ম মেনে আবার বিয়ে করতে হবে। তালাক দেয়ার পর যে ৯০ দিন সময় হাতে থাকে, ওই দিনের মধ্যে যদি তালাক দেয়া স্ত্রীকে গ্রহণ করতে চান, তা হলে একটি আবেদনপত্রে বিয়ে রেজিস্ট্রি অফিসের মাধ্যমে নিজের ভুল স্বীকার করে নিলে পুনরায় তালাক দেয়া স্ত্রীকে গ্রহণ করতে পারবেন। এক্ষেত্রে কোনো বাধা থাকবে না। আগের মতো সংসার করতে পারবেন। তালাক দেয়ার পর যে সময় হাতে থাকে, তার মধ্যে স্ত্রীকে ভুল স্বীকার করে গ্রহণ করলে কোনো রেজিস্ট্রেশন লাগবে না। কিন্তু তালাক কার্যকরের পর স্ত্রীকে গ্রহণ করতে চাইলে আবারও বিয়ে পড়িয়ে নতুন করে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে।

পুনরায় বিয়ের পর স্বামী যদি স্ত্রীর প্রতি কোনো ধরনের শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করে থাকেন, তবে স্ত্রী তার বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারেবেন। এমনকি যদি কাবিননামার ১৮ নম্বর কলামে স্ত্রী তালাকের বিধান থাকে, তবে স্ত্রী স্বামীকে তালাক দিতে পারবেন।

Facebook Comments

About the Author

Leave a comment

XHTML: You can use these html tags: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <s> <strike> <strong>