স্বামীকে আটকে রেখে শ্রেণিকক্ষে শিক্ষিকাকে ধর্ষণ
স্বামীকে আটকে রেখে শ্রেণিকক্ষে শিক্ষিকাকে ধর্ষণ

স্বামীকে আটকে রেখে শ্রেণিকক্ষে শিক্ষিকাকে ধর্ষণ

কবিরাজ: তপন দেব ।

নারী-পুরুষের সকল জটিল ও গোপন রোগের চিকিৎসা করা হয়। দেশে ও বিদেশে ওষুধ পাঠানো হয়।

আপনার চিকিৎসার জন্য আজই যোগাযোগ করুন - ০১৮২১৮৭০১৭০ (সময় সকাল ৯ - রাত ১১ )

বরগুনার বেতাগীতে স্বামীকে আটকে রেখে শ্রেণিকক্ষে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকাকে পালক্রমে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা দায়ের করা হযেছে। এ ঘটনায় ছয়জনকে আসামি করে গতকাল বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে বেতাগী থানায় মামলাটি দায়ের করেছেন সংখ্যালঘু পরিবারের ভুক্তভোগী  ওই শিক্ষিকা। পরে আজ শুক্রবার সকাল ১০টার দিকে তাকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়। আজ সকালে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন বরগুনার পুলিশ সুপার বিজয় বসাক পিপিএম।

 

মামলায় অভিযুক্তরা হলেন- বেতাগীর হোসনাবাদ ইউনিয়নের কদমতলা গ্রামের মোঃ হিরন বিশ্বাসের ছেলে সুমন বিশ্বাস (৩৫), আব্দুল বারেক মিয়ার ছেলে মোঃ  রাসেল (২৪), আঃ কুদ্দুস কাজীর ছেলে সুমন কাজী (৩০), মোঃ সুলতান হোসেনের ছেলে মোঃ রবিউল (১৮), আঃ রহমানের ছেলে মোঃ হাসান (২৫) ও মোঃ আবদুর রহমান হাওলাদারের ছেলে মোঃ জুয়েল (৩০)।

 

মামলা সূত্রে জানা গেছে, বেতাগী উপজেলার একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের এক সহকারি শিক্ষকা ও তার স্বামী ভারতের পূর্ব মোদেনীপুর জেলার নন্দী গ্রামের বাসিন্দা গতকাল বৃহস্পতিবার স্কুল ছুটির পর বিদ্যালয়ে বসে কথা বলছিলেন। তাদের কথোপকথন দেখে অভিযুক্তরা স্কুলের মধ্যে প্রবেশ করতে চাইলে ওই শিক্ষিকা ভয়ে স্কুলের প্রধান দরজায় তালা লাগিয়ে বন্ধ করে দেন। এ সময় অভিযুক্তরা তালা ভেঙে ভেতরে ঢুকে তার স্বামীকে এলোপাথারি মারধর করে স্কুলের একটি কক্ষে আটকে রেখে অপর একটি কক্ষে স্কুল শিক্ষিকাকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে চলে যায়।

 

এ ব্যাপারে বেতাগী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ মামুন-অর-রশিদ জানান, এ ঘটনায় ভুক্তভোগী ওই শিক্ষিকা মামলা দায়ের করেছেন। তার ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য তাকে বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে পাছানো হয়েছে। আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

লাইক দিন ও জনস্বার্থে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*